মজনু শাহ’র কবিতা
Reading Time: < 1 minute

মজনু শাহ’র কবিতা

কবি মজনু শাহ ১৯৭০ সালের ২৬শে মার্চ উত্তরবঙ্গে জন্মগ্রহণ করেন।  বর্তমানে ইতালিতে একটি রাসায়নিক কারখানায় কর্মরত আছেন। তাঁর প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থগুলো হল – আনকা মেঘের জীবনী (১৯৯৯),  লীলাচূর্ণ (২০০৫), মধু ও মশলার বনে (২০০৬), জেব্রামাস্টার (২০১১), ব্রহ্মাণ্ডের গোপন আয়না (২০১৪), আমি এক ড্রপআউট ঘোড়া (২০১৬)।

তাঁর প্রকাশিতব্য বই থেকে দুটো কবিতা তিনি দিয়েছেন বিভুঁই এর পাঠকদের জন্য। এই বই আলাদা করে ছাপা হবে না, এটি তাঁর কাব্যসংকলনের সঙ্গে যুক্ত হবে। এই বইয়ের কবিতাগুলোর ভাবনা নিয়ে তাঁর কাছে জানতে চেয়েছিল টীম বিভুঁই। উত্তরে তিনি বললেন-

আমি প্রায় কিছুই ভাবি না কবিতা নিয়ে। বড় বড় আইডিয়া যত আছে, সেসব আমার নাগালের বাইরে। একটা পঙক্তি আবছাভাবে জেগে উঠতে দেখি প্রথমে। যেন জানকীর ফেলে যাওয়া গহনা! সেটাকে স্পষ্টতা দিতে আর আর পঙক্তিগুলো।৮/১০/১৫… পংক্তিতে গিয়ে ফুরিয়ে যাচ্ছে শব্দেরা। গদ্যভঙ্গিতে শায়িতা। কুমারী মাছের মতো একা।

আজো তাই কাব্যভাবনা লেখা হয়ে উঠল না।

বিভুঁই এর নব যাত্রা শুরু হল আজ থেকে। চলুন বাংলা ভাষার বর্তমান সময়ের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ কবি মজনু শাহ’র কবিতার সাথে এই জার্নি আবার শুরু করি।

আকাঙ্ক্ষার ফাঁদ

সেইসব অচরিতার্থ তীব্র আকাঙ্ক্ষা তোমার মধ্যে এখনও

দৌড়ে বেড়াচ্ছে খরগোশের মতো। যেন তারাও পেতে চায়

অরূপের স্বাদ। যাতে তারা একদিন ভিতরের নৈরাজ্য

আর রক্তকরবীর মুখোমুখি হতে পারে।

আকাঙ্ক্ষার ফাঁদে পড়ে, তুমিও কি হারাও নি লক্ষ লক্ষ স্পার্ম!

দেখো, এরা তমসার কথা কিছু বলছে না, তবু

সূর্যাস্তের দিকে যাবার পথে তুমি বীণা হয়ে ওঠো, এখানে

সাপেদের মৈথুন, এখানে এক বাল্মিকি ঘুমায় চিরকাল।   

একটি বিভাস

তুমি কি দেখেছ ছিট-কুকুর কিভাবে দৌড়ায়?

সিংহদুয়ারে বসে থাকা নগ্ন কোনো সন্ত?

বিস্তীর্ণ শরবন?

একটি বিভাস তবু শুনতে পার উন্মাদ গায়কের কাছে। 

রেকাবীর সব ফল তোমার জন্যে নয়। হয়ত একদিন

খুঁজে পাবে মদের ফোয়ারা, বা কোনো রেশম-বণিকের 

মুঠোয় লুকানো চন্দ্রবিন্দু।